রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মৌলভীবাজার সদর ও রাজনগর উপজেলায় শারদীয় দুর্গাপূজার মন্ডপ পরিদর্শন। চুনারুঘাটে আসন্ন ‘চুনারুঘাট বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি (ব্যাকস) নির্বাচনে খলিলুর রহমান জাকির সাংগঠনিক সম্পাদক পদ প্রার্থী। খাদ্যমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাত নিয়ামতপুরে ভারতীয় সহকারি হাই কমিশনারের মন্দির পরিদর্শন! নিজ গ্রামে প্রথম মতবিনিময় সভার মধ্যে দিয়ে রতনকান্দি ইউনিয়নে নৌকার নির্বাচনি প্রচারনা শুরু পত্নীতলা উপজেলায় মৌসুমী শাক সবজি বীজ বিতরন মৌলভীবাজার জেলায় নিরাপদ খাদ্ (রেস্তোরাঁ) প্রবিধানমালা ২০২০ ও নিরাপদ খাদ্য (প্রত্যাহার) প্রবিধানমালা ২০২০ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত। বানারীপাড়ায় আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রর্থী হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে জাহিদ সরদার নাহিদ কলমাকান্দায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ছাত্রলীগ কর্মীর আত্মহত্যা । তারাকান্দায় নবগঠিত কমিটির পরিচিতি ও আলোচনা সভা। বানারীপাড়ায় এমপি শাহে আলম ও ডিসি অজিয়র রহমানের সরকারের উন্নয়ন কর্মযজ্ঞের স্থান পরিদর্শন।

ফুলপুর বওলায় ধর্ষনের ঘটনায় জড়িতদের শরীয়ত মোতাবেক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ১০ দফা দাবি উত্থাপন।

গোলাম মোস্তফা ফুলপুর প্রতিনিধি: 

দেশজুড়ে অব্যাহত নারী ধর্ষণ ও নিপীড়নের প্রতিবাদ এবং সকল ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের শরিয়ত নির্ধারিত শাস্তির দাবিতে মানবকল্যাণ সামাজিক সংগঠন (MSS) এর উদ্যোগে ময়মনসিংহ, ফুলপুর,বওলা বাজারে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।গত (১০অক্টোবর) বাদ আসর বওলা বাজার কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলপরবর্তী বিক্ষোভ সমাবেশে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য মাওলানা আশিকুর রহমানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন মানবকল্যাণ সামাজিক সংগঠনের উপদেষ্টা ও জামিয়াতুন নাজিবা বুশরা মহিলা মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মুবাশ্বির হোসাইন সাকী আল কাসেমী, উপদেষ্টা ও বওলা বাজার কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা শহিদুল ইসলাম, প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য মুফতি শাফায়াত তাসনীম, সংগঠনের ০১ নং ওয়ার্ড সভাপতি মাওলানা মাহবুব মন্ডল, বওলা স্বেচ্ছাসেবক সমাজ সংগঠনের জনাব রবিউল হক সরকার (বাবু), বক্তৃতায় মানবকল্যাণ সামাজিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাঃ মাওঃ আতাউর রহমান (সোহেল) বলেন, দেশে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের যে আইন রয়েছে তা ১৮৬০ সালের ১৬০ বছরের সনাতন আইন। এই আইনের মাধ্যমে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বন্ধ হচ্ছে না বরং নোয়াখলী,সিলেট,কুমিল্লাসহ স্বাধীন বাংলাদেশের ৫৬ হাজার বর্গমাইলের আনাচে-কানাচে প্রতিদিন ও মুহুর্তে মা-বোনেরা নির্যাতন ও ধর্ষণের শিকার হচ্ছে। তাই সনাতন আইন পরিহার করে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ নির্মুল করতে ইসলামী শরিয়াহ আইন চালু করতে হবে। তিনি আরো বলেন সংবিধানের জন্য জনগণ না বরং জনগণের জন্য সংবিধান। আর তাই জনগণের জন্য এই পর্যন্ত ১৬ বার সংবিধান সংশোধন করা হয়েছে। অতএব আবার জনগণ তথা মায়ের জাতির ইজ্জত সম্মান রক্ষার জন্য অতি দ্রুত সংসদ ডেকে আবার নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের শাস্তির সনাতন আইন পরিহার করতঃ ধর্ষকের শাস্তি ইসলামি শরীয়াহ মোতাবেক জনসম্মুখে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করতে হবে। তিনি আরও বলেন, দেশের বিচার বিচারহীনতার সংস্কৃতি বন্ধ করে ন্যায় বিচার কায়েম করতে হবে। এবং যারা ধর্ষকের পক্ষে কাজ করবে তাদেরকে সামাজিক ভাবে প্রতিহত করতে হবে। উক্ত বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা তালিমুন নিসা মহিলা মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা নুরুদ্দীন আহমেদ, জামিয়া খাদিজাতুল কুবরা মহিলা মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুফতি সাদেক হোসাইন, মাওলানা সাখাওয়াত আলম, মাওলানা আবু তাহের, হাঃ মাওঃ আজিজুল হক, হাফেজ সাইফুল ইসলাম, হাফেজ নুরে আলম, জহুরে আজম লাবু তালুকদার, বওলা দক্ষিণ পাড়া যুব সংগঠনের মিনহাজ উদ্দীন ও সংগঠনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ব্যক্তিবর্গ।নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে সংগঠনের পক্ষ থেকে।

১.ধর্ষণের অপরাধীকে অতি দ্রুত শরীয়াহ’র আইন মোতাবেক জনসম্মুখে শাস্তি নিশ্চিত করা

২.ধর্ম শিক্ষাকে গুরুত্ব দেওয়া

৩.ছেলে-মেয়েদের পৃথক শিক্ষা পদ্ধতি চালু

৪.অশ্লীল নাটক, সিনেমা, টেলিফিল্ম প্রচার বন্ধ করা

৫.ওয়েবসিরিজ ও অশ্লীল পর্ণসাইট বন্ধ ৬.পর্দা ও শালীন পোশাক ব্যবহার

৭.ন্যায় বিচার নিশ্চিত করা

৮.নারীকে অশ্লীলভাবে বিজ্ঞাপনে উপস্থাপনা বন্ধ করা

৯.বাল্য বিবাহ বন্ধের নামে প্রচলিত আইন সংশোধন

১০.প্রতি থানায় থানায়,ইউনিয়নে ধর্ষণ প্রতিরোধে আলাদা ধর্ষণ প্রতিরোধ কমিটি গঠন ও পৃথক হটলাইন চালু করা ১০ দফা দাবি উত্থাপন করে সংগঠনটি। সমাবেশ শেষে বওলা বাজার মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে বাজারের মেইন মেইন রাস্তা প্রদক্ষিণ করেন। পরে তা মসজিদ প্রাঙ্গণে এসে দোয়ার মাধ্যমে সমাপ্তি করা হয়।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017 আজকের তাজা খবর
Design & Developed BY Suhag Rana