মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:১৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সাপাহারে আ’লীগের ১নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক হলেন মানিক সাহা কুড়িগ্রামের রাজিবপুরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন হুমকীর মুখে নদীর তীরবর্তী বিভিন্ন গ্রাম সাপাহারে আ’লীগের ২নং ওয়ার্ডের সিনিয়র সহ-সভাপতি হলেন আদম আলী রামু বঙ্গবন্ধু উৎসবে জিৎময় বড়ুয়া’র সংকলিত ও সম্পাদিত বঙ্গবন্ধুর শত উক্তি’র মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ব্যারিষ্টার এসএম সাইফুল্লাহ রহমানের উদ্যোগে কম্বল বিতরন সাপাহার মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ে জনবল সংকট! নেই সচল তেমন কোনো যানবাহন ব্যবস্থা একাকীত্বের গল্প, এলোমেলো চিন্তা, বাস্তবে না হোক, আমাদের হৃদয়ে, কল্পনাতে হতেই পারে! পর্ব-২১ দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মী নিয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন মেয়র প্রার্থী শশধর সেন। জামালপুরের মেলান্দহে দুই শতাধিক কর্মীর জাতীয় পার্টিতে যোগদান কাউন্সিলর পদে মোঃ আরজু মিয়া মনোনয়ন পত্র দাখিল।

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে গ্রেফতার রাবি সাংবাদিকের মুক্তির দাবি

মো: মাইনুল ইসলাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: 

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এক শিক্ষকের দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দৈনিক যুগান্তরের প্রতিনিধি মানিক রাইহান বাপ্পীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রোববার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার চত্ত্বরে তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকরা।

মানববন্ধনের রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটি’র সভাপতি আরাফাত রহমান বলেন, এ ধরণের মামলা গোটা সাংবাদিক মহলের জন্য হুমকি স্বরূপ। মূলত অভিযুক্তদের কর্মকাণ্ড আড়াল করার চেষ্টা থেকে ক্যাম্পাসে কর্মরত সাংবাদিকদের হয়রানি করাই এ মামলার উদ্দেশ্য বলে মনে করি। এভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো পরিসরে সাংবাদিকেরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে যদি হয়রানির শিকার হতে হয় তবে অন্যান্য ক্যাম্পাসগুলোতেও সাংবাদিকতার পথ আরো সংকুচিত হয়ে যাবে। কাজের পরিবেশ রুদ্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হবে। তাই দ্রুত এই মামলাটি প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। একই সাথে গ্রেপ্তার মানিক রাইহান বাপ্পীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।

আজকের তাজা  খবর

রাবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহিন আলম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ সবসময়ই সাংবাদিকদের নিজেদের স্বার্থে ব্যবহারের চেষ্টা করেন। কোন সাংবাদিক শিক্ষকদের স্বার্থের বিপরীতে অবস্থান নিলেই তাকে হেয় প্রতিপন্ন ও হয়রানি করতে উনারা উঠে পড়ে লাগেন।

এ ঘটনায় রাবি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসাইন বিপ্লব বলেন, শুরু থেকেই আমরা তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার বিরোধিতা করে আসছি। এ ধারায় অপরাধ ও আইনের সামঞ্জস্যতা নেই। আমরা চাই দ্রতই সাংবাদিক মানিক রাইহান বাপ্পীকে নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়া হোক।

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- রাবি প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি আকরাম হোসাইন, রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি হারুন অর রশিদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আহমেদ ফরিদ, রাবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহিন আলম, উপদেষ্টা সুজন আলী প্রমুখ।

এর আগে, ২০১৫ সালের অক্টোবরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের তখনকার আবাসিক শিক্ষক ও কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের সহকারি অধ্যাপক কাজী জাহিদের বিরুদ্ধে সিট বরাদ্দ দিতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে চাঁদা দাবির অভিযোগ ওঠে। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এ সংবাদ প্রকাশের জের ধরে ২০১৫ সালের ২৪ অক্টোবর ক্ষুব্ধ ওই শিক্ষক যুগান্তরসহ ১৬টি পত্রিকার বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা দায়ের করেন। সে সময়ে বাপ্পী ২৪বিডিটাইম ডটকম নামে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মামলার এজহারে তার নামও উল্লেখ করা হয়েছিলো।

মামলার তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মতিহার থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মো. মোমিন।

এতে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সম্পাদক ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল ইসলাম, যুগান্তরের তৎকালীন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি হাসান আদিব, মানিক রাইহান বাপ্পী ও রাজশাহীর স্থানীয় দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদক লিয়াকত আলীসহ ৮ সাংবাদিককে আসামী করা হয়েছে।

এ মামলার প্রেক্ষিতেই গত শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) রাতে চাপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের নিজ বাসা থেকে গ্রেফতার হন সাংবাদিক মানিক রাইহান বাপ্পী। পরে শনিবার (১৪ নভেম্বর) আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

বাপ্পি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের শিক্ষার্থী ছিলেন। এছাড়া, রাবি প্রেস ক্লাবের ২৯তম কার্যনির্বাহী কমিটিতে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017 আজকের তাজা খবর
Design & Developed BY Suhag Rana