শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বানারীপাড়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তরুন জননেতা একে এম জাহিদ হোসেন সরদার ১০০ ফুট সিংহ্যশয্যা বৌদ্ধ মূর্তি সম্বলিত বিহার পরিদর্শনে বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার শ্রীবরদীতে (০২)টি পাতিল হাতির অবস্থান। বানারীপাড়ায় উপজেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কমিটি গঠন ৭ই মার্চ ও ১৭ই মার্চ উদযাপনে বানিয়াচংয়ে প্রস্তুতি সভা সমাজসেবাই বিশেষ অবদানের জন্য আবারো ন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি ক্রেষ্ট ও সনদপত্র পেলেন ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী ময়মনসিংহের ফুলপুরে জাতীয় ভোটার দিবস পালিত। জামালপুরে এক কিশোরীর গাছে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার শিক্ষক দ্বারা শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলা থেকে রক্ষা পেতে বিয়ে ! পরবর্তিতে তালাক এর নোটিশ । রাজনগরে পরনের কাপড় ছাড়া সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সুফিয়ার

মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনিত মেয়র ও কাউন্সিলরগন নির্বাচিত

মোংলা প্রতিনিধি 

বিএনপির দূর্গে আঘাত হেনেছে আওয়ামী লীগ। মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনিত মেয়র প্রার্থী শেখ আব্দুর রহমান ১১ হাজার ৫শ ৮৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন । তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি বিএনপি সমর্থক মোঃ জুলফিকার আলী পেয়েছেন ৫শ ৮২ ভোট । মোর্ট ৩১ হাজার ৫শ ২৮ ভোটের মধ্যে ৩৯ শতাংশ ভোট পড়েছে এবারের নির্বাচনে।এছাড়াও কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন , কবির হোসেন,শরিফুল ইসলাম,বাহাদুর মিয়া,শফিকুর রহমান খান,শরিফুল ইসলাম শলীফ,জিএম আল আমিন,হুমায়ুন হামিদ নাসির,সরোয়ার হোসেন,মজনু গাজী এবং মহিলা সংরক্ষিত আসনে জাহানার হোসেন চানু,জোহরা বেগম ও শিউলি আকন।নির্বাচিতরা সবাই আওয়ামী লীগের সমর্থক ও মনোনিত । নির্বাচন চলাকালে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়েছেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার ।

আপরদিকে,ভোট কেন্দ্র দখলসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে ভোট শুরুর দুই ঘণ্টার মাথায় মোংলা পৌর নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র ও কাউন্সিল ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহিসহ ১৯ জন প্রার্থীরা ভোট বর্জন করেছেন।ভোট বর্জন করা কাউন্সিলর প্রার্থিরা হলেন, ১ নম্বর ওয়ার্ডের (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহি) কাউন্সিলর প্রার্থী হাবিব ফকির, ২ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী ইমান হোসেন , ৩ নম্বর ওয়ার্ডের( জামায়াত সমর্থক )কাউন্সিলর প্রার্থী ইউনুস আলী , আওয়ামী লীগের বিদ্রোহি প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন,বিএনপি সমর্থিক সুমন মল্লিক, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী এমরান হোসেন ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহি প্রার্থী মোঃ মাসুম বিল্লা , ৬ নম্বর ওয়ার্ডের (জামায়াত সমর্থক)কাউন্সিলর প্রার্থী অ্যাড. মো. হোসেন,আওয়ামী লীগের বিদ্রোহি প্রার্থী ফিরোজ শাহ, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী মো. আলাউদ্দীন,আওয়ামী লীগের বিদ্রোহি প্রার্থী ওবুয়দুর রহমান, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী মো. খোরশেদ আলম, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী এম এ কাদের, সংরক্ষিত ১ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী কমলা বেগম, সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী লিলি বেগম; সংরক্ষিত-৩ নম্বর ওয়ার্ডের (বিএনপি সমর্থক) কাউন্সিলর প্রার্থী আয়শা বেগম,সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহি প্রার্থী সুমী লীলা ।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি সমর্থক মেয়র প্রার্থী জুলফিকার আলী অভিযোগ করে বলেন, ‘ভোট শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিটি কেন্দ্রে দখল করে আওয়ামী লীগ সমর্থিতরা। তারা ভোটারদের প্রকাশ্যে ভোট দেখাতে বাধ্য করে। সাধারণ ভোটারদের বাধা প্রদান করে। এছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে আমাদের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েও তিনি পাননি। তবে নব নির্বাচিত মেয়র দাবি করেন, ভরা ডুবির কথা জানতে পরে বিএনপি সমর্থকরা আগে থেকে ভোট বর্জনের জন্য নানা কৌশল খুজেছে । মুলত জনগন তাদের কে প্রত্যাখ্যান করেছে ।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017 আজকের তাজা খবর
Design & Developed BY Suhag Rana