শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:২৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বানিয়াচংয়ে জায়গা সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে দু’পক্ষের ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে নারী-পুরুষসহ আহত ১৫জন।।মুমূর্ষু অবস্থায় একজনকে সিলেট প্রেরন।। বৃক্ষপ্রেম থেকে সফল নার্সারি ব্যবসায়ী, বকুল মিয়ার দুঃখ সংগ্রাম সফলতা ও জীবনের গল্প। আবারো প্রমান মিললো রমজান রাত প্রায় ৩ টা নাগাত ! মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য। সাপাহারে পুলিশের উদ্যোগে পথচারীদের মাঝে ইফতার বিতরণ বাংলাদেশে এই প্রথম বৌদ্ধ সমাজে ২০ কোটি টাকা বাজেটে ৫ তলা বিশিষ্ট সংঘ হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্থর বানিয়াচংয়ে বৃদ্ধ‘র মৃত্যু রহস্য ঘিরে ধু্ম্রজালের সৃষ্টি ফুলপুরে দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে মানবতার পরিচয় দিল ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। কুড়িগ্রামে কৃষক লীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত “আয়োজন করা হলো অনলাইন সিলেটি কুইজ প্রতিযোগিতা-২.০” সংবাদ সম্মেলন।। গ্রাম্য মাতব্বরদের ইন্ধন,বানিয়াচংয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নারী আহত। বসতঘর ভেঙ্গে দেওয়ায় খোলা আকাশের নীচে মানবেতর জীবনযাপন।

জামালপুরে মজনুকে হত্যা মামলায় মা ও মেয়েসহ ৩ জনের সশ্রম যাবজ্জীবন

এমরান হোসেন , জামালপুরঃ জামালপুরে পরকিয়ার জেরে একজনকে হত্যার দায়ে মা ও মেয়েসহ তিনজনের সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন মোছা: জান্নাতুল ফেরদৌস শাপলা, তার মা মোছা: সুফিয়া আক্তার রিনা ও মো: এহসান আহাম্মেদ সোহাগ।

রবিবার দুপুরে রায় ঘোষনার পর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নির্মল কান্তি ভদ্র জানান, পরকিয়ার জেরে ২০১৩ সালের ৮ মে সকালে জামালপুর সদর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত আ:বারী সরকারের ছেলে মিজানুর রহমান মজনুকে হত্যা করে পার্শবর্তী ডেংগারগড় গ্রামের একটি পতিত জমিতে ফেলে রাখে। পরে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার দিনই নিহতের মা মোছা: হাসিনা বেগম বাদী হয়ে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুত্রবধূ মোছা: ফারজানা ইসলাম লাকীসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে পুলিশ তদন্ত করে হত্যাকান্ডের সাথে সম্পৃক্ততা না থাকায় নিহতের স্ত্রীকে মামলা থেকে অব্যহতি দিয়ে ও কললিস্ট পর্যালোচনা করে ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় চার জনের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২২ জুলাই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আদালত দীর্ঘ বিচারের পর ১৯ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ১২ জনের স্বাক্ষের ভিত্তিতে জেলা ও দায়রা জজ মো: জুলফিকার আলী খাঁন হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকায় মোছা: জান্নাতুল ফেরদৌস শাপলাকে সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড, মো: এহসান আহাম্মেদ সোহাগ ও মোছা: সুফিয়া আক্তার রিনাকে সশ্রম কারাদন্ড ও ৩০ হাজার টাকা অর্থদন্ডাদেশ দেন। ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততা না থাকায় আবুল হোসেনকে বেকসুর খালাস দেয় আদালত।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন নির্মল কান্তি ভদ্র ও আসামী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, আনোয়ারুল করিম শাজাহান ও মো: মোশারফ হোসেন।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017 আজকের তাজা খবর
Design & Developed BY Suhag Rana