চুকনগরে ঘুষ ছাড়া কাজ করেন না সহকারী ভূমি কর্মকর্তা। চাপের মুখে ঘুষের টাকা ফেরত।

মোঃ ইমরান হুসাইন, চুকনগর প্রতিনিধি

https://centuriesactionperfectly.com/fri9aqr0et?key=e782ae7859b5b8952f53f6cabe2e1a57

চুকনগরে (বয়ারসিং ) ভূমি আফিসে সহকারী কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হোসেন ঘুষ ছাড়া কাজ করেন না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মোটা অংকের ঘুষের টাকার বিনিময়ে কেটে দেন খাজনার দাখিলা সহ অন্যান্য সকল কাজ। অনেক সময় ঘুষ দিয়েও মেলে না খাজনা দাখিলা। ভুক্তভোগী চুকনগর (বয়ারসিং) বাসিদের কাছে অভিনব কৌশলে ঘুষ আদায়ের অভিযোগও পাওয়া গেছে তার বিরুদ্ধে । ফলে প্রতিনিয়ত হয়রানির শিকার হচ্ছে অত্র এলাকার ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষ।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী চুকনগর ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক মনিরুল হক আমাদের কে জানান, তাঁর কাছে থেকে খাাজনার দাখিলা কেটে দেবেন বলে চল্লিশ হাজার (৪০,০০০) টাকা নিয়েছিলেন তাঁর নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে। প্রায় এক মাস আগে নেওয়া এই ঘুষের টাকা খাজনা দাখিলা কেটে দেবেন বলে তিনি আমাকে বলেছিলেন। কিন্তু আজও পর্যন্ত আমাকে সেই জমির খাজনা দাখিলা কেটে দেয়নি। দাখিলা অথবা টাকা কোনটায় ফেরত না পেয়ে আমি স্থানীয় সাংবাদিক বৃন্দদের জানালে গত বৃহস্পতিবার আমার টাকা ফিরিয়ে দিয়েছে। এ দিকে আরেক ভুক্তভোগী মাগুরাঘোনা ইউনিয়নের আরশনগর গ্রামের মোঃ ইয়াজদানী নামের এক ব্যক্তির নিকট হতেও তিনি চল্লিশ হাজার (৪১,০০০) টাকার ঘুষ দাবি করেছিলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

যানা যায়, চুকনগর (বয়ারসিং) ভূমি আফিসে সহকারী কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হোসেন খুলনা জেলার কয়রা থেকে ঘুষ কেলেঙ্কারীতে পরিবর্তন হয়ে গত মার্চ মাসের দিকে চুকনগর (বয়ারসিং) ভূমি আফিসে যোগদান করেছেন। এই অল্প সময়ের মধ্যে তিনি অত্র এলাকার মানুষের কাছে এভাবেই লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে এলাকাবাসির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যে সহকারী ভূমি অফিসার মোঃ ইকবাল হোসেন এর ঘুষ কেলেঙ্কারীর বিষয়টি স্থানীয় ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। এ ব্যাপারে ইউনিয়ন (বয়ারসিং) ভূমি আফিসের সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হোসেন আমাদের বলেন, আমি চুকনগর ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক মনিরুল হকের নিকট থেকে চল্লিশ হাজার টাকা (৪০,০০০) নিয়েছিলাম কিন্তু খাজনার দাখিলা কেটে দেইনি বলে সেই টাকা ফিরিয়ে দিয়েছি। এ ছাড়া ইয়াজদানী নামের এই লোকটি কে আমি চিনি কিন্তু আমি তাঁর কাছে থেকে ঘুষের কোন টাকা নেয়নি

এ ব্যাপারে ডুমুরিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, আমি মাত্র এক সপ্তাহ ডুমুরিয়া তে যোগদান করেছি তাই আমি জানিনা কোন অফিসার কেমন তবে চুকনগর (বয়ারসিং) ভূমি আফিসের বিষয় টি আমি আজকে জেনেছি। আমি বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

https://www.videosprofitnetwork.com/watch.xml?key=e6676c1ee74ac4fa433d5576d44623e0
x